রবের করুণার স্রোতধারা

0
3

রবের করুণার স্রোতধারা

হঠাৎ করেই দেখবেন, একদিন আপনার সব দোয়া কবুল হয়ে যাবে। যে হাত উপরে তুলে করুণা ভিক্ষা চেয়েছেন, চেয়েছেন রবের আশ্রয়, যে দোয়া করতে গিয়ে আপনার কন্ঠ হয়েছিল কান্না বিজরিত, দু’চোখ বেয়ে ঝর্ণার মতো বয়েছিলো আকাঙ্খিত অশ্রু জল- সে হাত একদিন ভরে উঠবে দয়ালু রবের করুণাধারায়; হৃদয় হবে পূর্ণ, সকল আশা হবে পূরণ, দোয়া হবে কবুল….

অনেকদিন কেঁদে কেঁদে যখন অশ্রুসিক্ত চোখে, ভাঙ্গা হৃদয়ে অপেক্ষায় ছিলেন রবের অপরিসীম রহমতের, তখন কোন একদিন আপনার প্রকাশ্য শত্রু শয়তানের প্ররোচনায় হারিয়েও ফেলেছিলেন সকল আশা; সেদিন ভেবেছিলেন, হয়তো আপনার পাপের পরিমাণ বেশি হওয়ায় আপনার দোয়া আর কবুল হচ্ছেনা; সে শয়তান ভুলিয়ে দিয়েছিলো যে, মহান রবের দয়া তাঁর রাগ বা শাস্তির চেয়ে অনেক অনেকগুণ বেশি।

হুট করে মহান আল্লাহ কবুল করে নিবেন সব দোয়া; আপনি প্রথমে বিশ্বাসই করতে পারবেনা না! এ ও কী সম্ভব! তখন তোমার মনে পড়বে,

আল্লাহ্‌র সে ঘোষণাঃ ‘ইন্নামা আমরুহু ইযা আরাদা শাইয়ান আই ইয়াকুলা লাহু কুন ফাইয়াকুন।’
অর্থঃ তাঁর (আল্লাহ্‌র) আদেশ শক্তি এইরূপ যে, যখন তিনি কোন কিছু প্রস্তুত করতে ইচ্ছা করেন, তখন শুধু মাএ “হও” আদেশ করলেই তা হয়ে যায়।
সূরা আল- ইয়াসীন। আয়াত ৮২।

সেদিনও আপনি কাঁদবেন। তবে এ কান্না আনন্দের। কবুল হবেনা ভেবে হতাশ হয়ে পড়েছিলো যে হৃদয়, সে হৃদয়ের দুকূলে সন্তুষ্টির প্লাবন বয়ে যাবে; দু’চোখ আবারো ভিজে উঠবে আনন্দে, পরিতৃপ্তির ঢেকুরে।

শোকরিয়ার সিজদায় পড়ে জায়নামাজ অশ্রুজলে ভিজিয়ে সেদিন হয়তাে ফিসফিস করে এও বলে উঠবেন, “হে আমার পালনকর্তা! আপনাকে ডেকে আমি কখনাে নিরাশ হয়নি”
সুরা মারইয়াম ১৯ঃ৪!

সুবহানআল্লাহ।
আল্লহামদুলিল্লাহ।
আল্লাহু আকবর।


সংকলনে
মোঃ নাজিম উদ্দিন
সেপ্টেম্বর ২, ২০২২