জুমা দিবসের ভাবনাঃ ৬ –‘মানুষ বড়ই অকৃতজ্ঞ…..

Dec 15, 2023 | আত্মউন্নয়ন ও মোটিভেশন, গল্প প্রবন্ধ উপন্যাস, ধর্ম, জীবন এবং জীবনভাবনা | 0 comments

Post View : 22
 

জুমা দিবসের ভাবনাঃ ৬

‘মানুষ বড়ই অকৃতজ্ঞ…..’


মানুষের কাছে প্রত্যাশা শুধু কণ্টই বাড়ায় না, বরং হতাশও করে।
মানুষ পরমুহূর্তেই ভুলে যায় সবকিছু।

কথাটা সম্ভবত মাদার তেরেসার।
“The good you do today, people will often forget tomorrow;
Do good anyway.”

এ মনে না রাখা, বিশেষ করে উপকারীর উপকার স্বীকার না করা, অকৃতজ্ঞতা যে মানুষ শুধু তার পরিচিতজনের সাথে করে তা কিন্তু নয়ই, বরং তার সৃষ্টকর্তার সাথেও করে থাকে! কী দুঃসাহস!
তবে পবিত্র কোরআসে মহান আল্লাহ স্বয়ং এ কখা একাধিকবার বলেছেন। মানুষকে যিনি সৃষ্টি করেছেন, মানুষের স্বভাব, ধর্ম, আচরণ, মানসিকতা তো তিনিই ভালো জানবেন।

আল্লাহ বলেন,
‘তিনিই (আল্লাহ) তোমাদের কান, চোখ ও মন দিয়েছেন (অথচ) তোমরা অল্পই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে থাকো।’
(সুরা মুমিনুন : ৭৮)।

অন্যত্র এসেছে,
‘তিনিই তোমাদের সৃষ্টি করেছেন আর তোমাদের দিয়েছেন দেখা ও শোনার শক্তি এবং একটি অন্তর। অথচ তোমরা অল্পই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করো।’
(সুরা মূলকঃ ২৩)।

তেমনই

‘মানুষ তো তার প্রতিপালকের প্রতি অকৃতজ্ঞ।’
(সুরা আদিয়াত : ২)।

আবার এসেছে,
‘নিশ্চয়ই তোমার প্রতিপালক মানুষের প্রতি অনুগ্রহশীল। কিন্তু (মানুষের) অধিকাংশই অকৃতজ্ঞ।’
(সুরা নমল : ৭৩)।

আল্লাহতায়ালা সরাসরি বলেছেনঃ
‘মানুষ বড়ই অকৃতজ্ঞ।’
(সুরা বনি ইসরাইল : ৬৭)।

বন্ধুত্ব, পরিবার, সমাজ, কর্মক্ষেত্র বা রাষ্ট্রীয় জীবন, সর্বত্রই মানুষের এমন আচরণ চোখে পড়বে, কখনো আগে, কখনো পরে।
অনুধাবনের পর একপক্ষ স্বভাবতই হতাশ হন, কষ্ট পান।

তবে এ বিষয়ে আল্লাহ তায়ালা সরাসরি শাস্তির প্রকৃতি কী হবে, তাও মানুষকে জানান দিয়ে রাখছেন।।
আল্লাহ বলেন,
‘আমি অকৃতজ্ঞদের জন্য প্রস্তুত রেখেছি শেকল বেড়ি এবং লেলিহান আগুনের শিখা।’
(সুরা দাহর : ৩)

কিংবা,
‘অকৃতজ্ঞ অবস্থায় তুমি কিছুকাল জীবন উপভোগ করে নাও, তুমি হবে একজন জাহান্নামী।’
(সুরা জুমার : ৮)

আল্লাহ আমাদের সঠিক জ্ঞান করুন।


মোঃ নাজিম উদ্দিন
ডিসেম্বর ১৫, ২০২৩