জীবন সৃষ্টিকর্তার দেয়া সুন্দর উপহার’

0
82

জীবন সৃষ্টিকর্তার দেয়া সুন্দর উপহার’

শাহিদা আকতার জাহান

*******

জীবনকে সহজ করার উপায় জানতে হলে আমাদের জীবনের প্রয়োজনীয় ও অপ্রয়োজনীয় বিষয়গুলো জানতে হবে। আমাদের জীবনে অনেক বিষয়ই আছে যেগুলোর অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আর অনেকগুলো বিষয় আছে যেগুলোর সত্যিকার কোনও গুরুত্ব নেই। আমরা সেগুলোকে অতি গুরুত্বপূর্ণ ভেবে মূল্যবান সময় ও শক্তি নষ্ট করি। গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো কঠিনভাবে এড়িয়ে চলি।

জীবনের ভুল চলতে চলতে আমরা ভুলেই যাই যে সুন্দরভাবে বাঁচাটাও একটি শিল্প। সুন্দরভাবে বেঁছে থাকাটার নাম জীবন।

আমাদের জীবন সৃষ্টিকর্তার দেয়া একটি অসাধারণ সুন্দর উপহার। কিন্তু আমরা জীবনের সত্যিকার সৌন্দর্য খুঁজে পাই না। নিজের ইচ্ছাকে বাদ দিয়ে অন্যের ইচ্ছায় জীবনের মূল্যবান একটি মুহুর্ত পার করা মানে আল্লাহর দেওয়া সুন্দর একটি জীবনের প্রতি অসম্মান জানানোর সমান।

আমরা প্রতিনিয়ত যা করি তাই আমাদের অভ্যাসে পরিণত হয়। ইংরেজীতে একটি কথা আছে- What we repetadely do, becomes our habit. আজ পর্যন্ত আপনার সাফল্য, ব্যর্থতাও আপনার অভ্যাস, ইচ্ছার, কষ্টের, অধ্যবসায়ের ফলাফল। যত বেশি ভাল অভ্যাস গড়ে তুলবেন, যত বেশি কষ্ট করবেন যত বেশি অধ্যবসায় হবো, তত বেশি আপনার জীবন সাফল্যের দিকে এগিয়ে যাবে।

প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠেই আমারা যদি মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে সারাদিন চলার জন্য একটি দিক নির্দেশনা প্রার্থনা করি এতে নিজের উপর বিশ্বাসটা জোরালো হবে। দেখা যাবে আমরা চাইলেও ভুল পথে পা বাড়াতে পারছিনা। আল্লাহ আমাদের ভালোভাবে চলার দিকনির্দেশনা দেবেন।

বর্তমান সময়ে আমরা সবচেয়ে বেশি উদাসীন ধর্মীয় বিষয়ে। দুনিয়ার সাফল্য পাওয়ার জন্য আমরা যে কোন কিছু করার জন্য প্রস্তুত থাকি, উদগ্রীব হয়ে থাকি। একটু বিচার বিশ্লেষনও করিনা, এটা আসলে আমাদের জন্য কতটুকু কল্যাণকর। ধর্মীয় বিষয়ে কেউ আমাদের কোন ভালো উপদেশ কিংবা আদেশ দিলে আমরা ত্যক্ত-বিরক্ত হই। এতটুকু চিন্তাও করি না মানুষের জন্য চিরন্তন সত্য হলো, নিশ্চিত বিষয় হল মৃত্যু।জীবনের মতো মৃত্যুও আমাদের ভালবাসার আরেক নাম। যেহেতু আমাদের মৃত্যু হবেই।
জীবনটা খুব সহজ নয়, তারপরও জীবন অনেক সুন্দর! কথাটাকে বিশ্বাস করে এগিয়ে চলুন।

জীবন একান্তই আপনার চাওয়া ও পাওয়া আপনার সিদ্ধান্তের প্রতিফলন। আপনার প্রতিটি পদক্ষেপ, প্রতিটি সিদ্ধান্ত জীবনকে ভালো-মন্দের দিক্ নির্দেশিত করবে। জীবনের পথ কোন দিকে বাঁক নেবে তা নির্ভর করে আপনার সুনিদিষ্ট পথচলার ওপর। নিজের সুখ-দুঃখ, দর্শন, আর কাজ নিয়েই আপনার জীবন।

দিনশেষে নিজের জন্য, আপনার ভালবাসার মানুষদের জন্য এবং আপনার সৃষ্টিকর্তার জন্য আপনি কি করেছেন – সেটাই জীবনের আসল অর্থ আসল পরিপূর্ণ বিষয়। কখনো নিজের জীবনকে অন্যের জীবনের সাথে তুলনা করতে যাবেন না। কারণ এতে আপনার কষ্ট হবে, মন ভেঙ্গে যাবে, মনের সুন্দর ইচ্ছে শক্তি নষ্ট হয়ে যেথে পাবে। আপনার সুন্দর জীবনযাপনের উপায় আপনার কাছেই আছে। এটা শুধু আপনার কাছে বিদ্যমান।

আপনি তখনই একজন সফল ব্যক্তি, প্রতিষ্টিত ব্যক্তি, সাহসী ব্যক্তিতে পরিণত হবেন যখন আপনি আপনার প্রত্যাশিত সেক্টরে যারা সফল হয়েছেন তাদের পরিশ্রমগুলো, অভ্যাসগুলো আপনার মাঝে আয়ত্বে আনতে পারবেন। কেননা, তারা যে অভ্যাসগুলো তৈরি করে অথবা যে অভ্যাসগুলো ভেঙে ফেলে সফল হয়েছেন, সে অভ্যাসগুলো মেনে চলে আপনিও সফল হয়ে দেশের সমাজের সর্বোপরি বিশ্বরেকর্ড সৃষ্টি করতে পারবেন।

জীবনের শেষবেলায় গিয়ে প্রতিটি মানুষের কাছে এই বিষয়গুলিই শেষকথা। কিন্তু আমরা আমাদের জীবনে আরও অনেক অপ্রয়োজনীয়, মূল্যহীন বিষয় ও বস্তুর জন্য সময়, মেধা ও চিন্তা খরচ করে জীবনের আসল সৌন্দর্যকেই ভুলতে বসি। এর ফলে সত্যিকার জীবন আর যাপন করা হয়না। পূরণ করা হয়না নিজের ঠিক করা লক্ষ্য, ভালবাসার মানুষগুলোর সাথে ঠিকমত সময় কাটানো হয় না। সৃষ্টিকর্তার সামনে দাঁড়াতে হয় অপরাধীর মত।

বর্তমান যুগ কর্মের যুগ। যে জাতি, ব্যক্তি যত বেশি কাজ করবে, সে ব্যক্তি বা জাতি ততো এগিয়ে যাবে। আর এগিয়ে যাওয়া মানুষেরাই অন্যদের জীবন পরিবর্তনের জন্য পরামর্শ, উপদেশ দিতে পারে। তাছাড়া কর্মে ব্যস্ত থাকলে দুশ্চিন্তা কমে, শারীরিক, মানসিক এবং আর্থিক সুখ ও সমৃদ্ধি বাড়ে

তাই কাজকে ভালোবেসে কাজের মধ্যে নিজেকে ব্যস্ত রাখুন। আর যত ব্যস্ততা, তত সুস্থতা। কিন্তু একটু চেষ্টা করলেই কিন্তু আমরা সেইসব অপ্রয়োজনীয়, ক্ষতিকর, মূল্যহীন বিষয়বস্তু থেকে বেঁচে থেকে জীবনটাকে সত্যিকার ভাবে উপভোগ করতে পারি।

এই জটিলতা থেকে মুক্তি পেয়ে জীবনকে সত্যিকার উপভোগ্য করে তুলতে পারাটাই জীবনের স্বার্থকতা।জীবনকে সহজ করার উপায় হল, জীবন থেকে জটিল করছে সে জিনিসগুলো বাদ দেয়া।
কোনও বিষয়েই বেশিক্ষণ বা বেশিদিন মন খারাপ করে রাখাটা আপনার জীবনের প্রতি অবিচার। আপনাকে মনে রাখতে হবে আমাদের প্রত্যেকেরই জীবন খুবই সীমিত একটি সময়ের। জীবনের প্রতিটি মূহুর্তকে অর্থপূর্ণ কাজে লাগাতে হবে।

কোনও বিষয়ে মন খারাপ থাকলে জেনে রাখুন, মনমরা হয়ে থাকলে সমস্যা সমাধান হয়না। এতে করে শুধুমাত্র আপনার জীবন থেকে মূল্যবান কিছু সময় নষ্ট করা হয়। তাই প্রতিটি মূহুর্তকে উপভোগ করার চেষ্টা করুন। খারাপ ঘটনার পাশাপাশি আমাদের জীবনে ভাল ঘটনাও ঘটে। সে ভালো কাজ, ভালো ঘটনা নিয়ে এগিয়ে যান, দেখবেন মহান আল্লাহ দান এই অপরূপ পৃথিবী অনেক অনেক সুন্দর।

সৃষ্টিকর্তার দেয়া অসম্ভব সুন্দর, সুবিশাল উপহার এ “জীবন” হয়ে উঠুক কর্মময়, সাফল্যময় এবং গতিময়।

—–

শাহিদা আকতার জাহান
সদস্য, জেলা পরিষদ, চট্টগ্রাম
নির্বাহী সদস্য, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগ
সিনিয়র সহ-সভাপতি, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামীলীগ।
সভাপতি, চট্টগ্রাম দুঃস্থ কল্যাণ সংস্থা