কেন বই? কেন পড়তেই হবে?- পর্ব ১

Feb 6, 2023 | আত্মউন্নয়ন ও মোটিভেশন, গল্প প্রবন্ধ উপন্যাস

Post View : 15
 

কেন বই?
কেন পড়তেই হবে?- পর্ব ১

‘বই কিনে কেউ দেউলিয়া হয় না’ – লেখক সৈয়দ মুজতবা আলীর কথাটি সবসময় সত্য।
‘রুটি মদ ফুরিয়ে যাবে, প্রিয়ার কালো চোখ ঘোলাটে হয়ে আসবে, কিন্তু বইখানা অনন্ত- যৌবনা- যদি তেমন বই হয়।”
প্রখ্যাত সাহিত্যিক সৈয়দ মুজতবা আলী ওমর খৈয়ামের কবিতার ভাবানুবাদ করেছিলেন এমনই।।

তবুও বই ছাড়া অন্য সব মাধ্যমের উপর নির্ভর করতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন এক শ্রেণির মানুষ।

কেন বই?
বই শুধু তথ্যই দেয় না, দেয় মনে আনন্দও।
বই শুধু জ্ঞানের পরিধিই বাড়ায়, বাড়ায় জানার আগ্রহও।
বই শুধু এককালে বাঁচতে নয়, সকল কালে নিজেকে বেড়াতে আনতে সহায়তা করে।

কেন পড়তেই হবে?
বই আর পড়ার মধ্যে এক সম্পূরক সম্পর্ক বিদ্যমান৷ শিল্প, প্রযুক্তি, তথ্য প্রবাহ, ইন্টারনেট ইত্যাদি আবিষ্কারের পর মানুষ বই ছাড়াও অনেক মাধ্যম হতে সংগ্রহ করতে পারে প্রয়োজনীয় তথ্য, তত্ত্ব, উপাত্ত। কিন্তু বইয়ের আবেদন আদিম। আধুনিক। সর্বব্যাপী।

পড়া মানুষকে সমৃদ্ধ করে জ্ঞান ও দক্ষতা দ্বারা। পড়লে মানুষ দূর করতে পারে অজ্ঞতার অন্ধকার, আলোকিত করতে পারে নিজেকে, নিজের ভেতরের সত্ত্বাকে।
পড়লে মানুষ নিজেকে দূর করতে পারে কুসংস্কার থেকে, কুপ্রথা থেকে, কু অভ্যাস থেকে। পড়া মানুষকে নিয়ে যায় জ্ঞানের উচ্চতর ভুবনে।

পড়া মানুষকে দেয় কল্পনা করার শক্তি, স্বপ্ন, সাহস। পড়লে মানুষের ভাবনার সকল দ্বর হয় উন্মুক্ত। পড়া বন্দি খাঁচা থেকে মানুষকে মুক্ত করে নিয়ে যায় সুবিশাল আকাশে…

পড়া মানুষকে পরিমিতিবোধ শেখায়। শেখায় ত্যাগ, শেখায় আত্মত্যাগ। পড়লে মানুস যে জিততে শেখে তা নয়, পড়লে মানুষ শিখে কিভাবে জিতে গিয়ে হারানোর চেয়ে হেরে গিয়ে জেতানোর পরিতৃপ্তি অধিক।
পড়া মানুষকে একাকিত্ব, সঙ্গীহীনতা বা মানসিক একাকিত্ব থেকে মুক্ত করে। একটা ভালো বই অনেক বন্ধুর চেয়ে বেশি কার্যকর।

জানতে হলে যেমন পড়তে হবে, তেমনি জানাতে হলেও পড়তে হবে।
ভাবনা দূর করার জন্য যেমন পড়তে হবে, তেমনি ভাবার জন্যও পড়তে হবে।
পড়তে হবে নিজের জন্য, পরিববারের জন্য, সমাজের জন্য, রাষ্ট্রের জন্য, সারাবিশ্বের জন্য।
পড়তে হবে জ্ঞানের জন্য, ধ্যানেে জন্য, মনের জন্য, মননের জন্য, মানসিকতার জন্য, মানবিকতার জন্য…

পড়তে হবে বাঁচার জন্য, বাঁচানোর জন্য, জেতার জন্য, জেতানোর জন্য, এগিয়ে যাওয়ার জন্য, এগিয়ে দেয়ার জন্য, সভ্য হওয়ার জন্য, সভ্যতার জন্য….

বই পড়ুন। পড়তেই হবে…

নাজিম
৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩