যদি ভেবে থাকো

0
22

যদি ভেবে থাকো

যদি ভেবে থাক-
সরব যুগে নীরব বচন কেন ?
শ্রোতার কাছে শ্রবণই শক্তি জেনো।

যদি মনে করো-
আঁধার পথে মন্থর গতি কেন?
লক্ষ্যবিন্দুয় নিশান অটুট জেনো!

যদি তুমি ভাবো-
বিনা লাভে পরার্থে দৌড় কেন?সৃস্টিরাজার পূজায় সে যে অর্ঘ্য বলে জেনো।

যদি মনে করো-
আসল ফেলে মরীচিকায় বা কেন?
বিজয়হীনেও জয় যে আছে, জানো?

যদি কভু দেখো-
রক্ত ছাড়াও আত্মার বাঁধন খুঁজি,
মশাই, সবই রবের একই সৃষ্টি বুঝি।

তবে ভাবো কভু-
স্বর্গভুলে মত‍্য নিয়েই কেন?
মত‍্য-কর্মেই স্বর্গচাবিটা জেনো।

যদি তুমি ভাবো-
তোমার মত স্বার্থ-ভাবিনা কেন?
অনেক ত্যাগে আত্মতৃপ্তি, কথাটা কি জানো?

তবে যদি ভাবো-
বোকার মতো সরল-গরল কেন?
মশাই, সে বোকামির অর্থ গভীর  জেনো।

হাসো যদি ভেবে-
ইট-ইরামত সঞ্চয়ে নেই সাধন!
এই মুসাফিরের ক্ষণিকালয়ের যাপন!

তুমি যদি ভাবো-
সুনাম-এনামে নেই কোনো মন?
বুদবুদসম “নাম” থাকেইবা কতক্ষণ?

যদি আশা করো-
সবার মতো করিনা কেন তোষামোদ?
নিজ-পছন্দে এই হোক আমোদ!

কভু যদি ভাবো-
গড্ডালিকা প্রবাহে নেই আমার তরী!
জেনো, আমার-আমি বড়ই স্বেচ্ছাচারী।

যদি ভেবে থেকো-
অধুনাযুগে আমার যাত্রা কেন সেকালে?
জেনো, ফিরতেই হবে, কালে বা অকালে।

তবে যদি ভেবো-
বুঝিনা সব, যা করো আমার সনে-
‘না বলা’-টা ‘না বুঝা’ নয়-তা-তো বুঝো মনে।

তুমি ভাবছো বলবে-
কবিতা লেখার কবি নই আমি কভু,
ভাবনা-আবেগ প্রকাশ করি তবু!

যদি হাসো ভেবে,
সুর-তালহীন কাব্য যত মোর!
প্রকাশ তো হোক আঁধারে থাকা ভোর!

যদি ঘৃণা করো-
এই ভেবে, আপন বলয়ে করছি শুধু তাহা!
জেনো, “আমি তাই করি ভাই এই মন চাহে যাহা”..

তবে ভেবোনা-
এটা প্রতিবাদ বা আঘাত কিবা দুঃসাহস!
এটা হোক “অসংকোচ প্রকাশের দুরন্ত সাহস”।

—-
মোঃ নাজিম উদ্দিন
nazim3852@gmail.com
১৬-০৮-২০১৮