অমর মহাযাত্রা

0
12

অমর মহাযাত্রা

একদিন নিবে যাবে যত
নিয়রবাতি, সময়ের অঞ্জলি
আর লাল-নীল-দীপাবলি;
হারিয়ে যাবে অযুত স্বপ্নের
শত রঙিন সৌধ, পুষ্পকলি;
মুছে যাবে শত অশ্রুজল
দীর্ঘশ্বাস, হাহাকার, অভিযোগ;

নিমিষেই শুন্যে মিশিবে সেদিন
অমরত্বের মরীচিকা, দম্ভের ফানুস;
মিনারের আযানও হবে স্তব্ধ,
সূর্যকে ডুবাবে সুবহে সাদিক।
সম্পদের স্তুপ, অর্থের পাহাড়
গর্বের তৃপ্তি, অসাম্যের মুর্তি-
সবই ধুলায় মিশিবে নিমিষে, হে।

তিনটি বড় ভূমিধস, কিংবা
দাব্বাতুল আরদ্ নামক জন্তু
ভূমিকম্পে ভাঙ্গবে সাফা পর্বত;
আকাশ-যমীনের বেষ্টসৃ

বিশাল ধোঁয়া পূর্ণ করবে মধ্যবর্তী সকল খালি জায়গা আর শুন্যতা!
তারও চেয়ে বৈচিত্রময় সেদিন
হবে পশ্চিম দিক থেকে সূর্যোদয়;
বন্ধ হবে মানুষের তওবা কবুলিয়ত!

বিলোপ হবে কুরানের অক্ষর:
এ যেন শুধুই সাদা কাগজ অবশিষ্ট!
দক্ষিনের বায়ু হবে প্রবাহিত অার
উঠে যাবে দুনিয়া যত ইলম!
ভয়াবহ আগুনে জড়ো হবে মানুষ
শ্যাম দেশের চুড়ান্ত বলয়ে।

অবশেষে অবসান হবে খেলাঘর
ইসরাফিলের শিঙ্গায় ফুঁক অার
দিশেহারা মানুষের অার্তনাদ!
সাঙ্গ হবে শুক্রবারে আসর সময়।
যেমনটি বলা হলো কোরঅানে,
“আসমান-জমীন-’যখন ভূমণ্ডল
তার কম্পনে প্রকম্পিত হবে,
যখন সে তার বোঝা বের করে দিবে
এবং মানুষ বলবে, এর কি হল?
(সূরা যিলযালঃ আয়াতঃ ১-৩।)

অতপর সে অমোঘ উক্তিঃ
সৃষ্টিজগত ধ্বংস-শেষে রবের ঘোষণা-
‘আজ রাজত্ব কার? এক প্রবল
পরাক্রান্ত আল্লাহ তায়ালার।’
(সূরা মু’মিনঃ আয়াত-১৬).

আর সবশেষে নবরূপে জীবনের
অনন্তকালে চুড়ান্ত অমর মহাযাত্রা!

—-
মোঃ নাজিম উদ্দিন
লেখকবাংলাদেশ.কম
২০-০১-২০২০